রাহুল দ্রাবিড়ের পরিচয় দেয়ার জন্য ক্রিকেট মাঠে তার অসংখ্য কীর্তির কথা বলা যেতে পারে। তিনি একাধারে ভারতের সাবেক অধিনায়ক, টেস্ট ও একদিবসীয় ক্রিকেটে ১০,০০০-এর বেশি রান করা আটজন ব্যাটসম্যানের একজন, টেস্টে তার রয়েছে পাঁচটি দ্বিশতক, তিনি টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে সবথেকে বেশি ক্যাচ (২১০) ধরা ফিল্ডার। শুধুমাত্র স্টাটের উপর ভিত্তি করেই রাহুল দ্রাবিড়কে অনায়েসে সর্বকালের সেরা ব্যাটসম্যানদের কাতারে ফেলে দেয়া যাবে। কিন্তু শুধুমাত্র সংখ্যা দিয়ে সবসময় একজন ক্রিকেটারের মাহাত্ম বোঝা যায় না। আমরা যারা ২০০০-এর আশেপাশের সময় থেকে ক্রিকেট দেখা শুরু করেছি, তাদের কাছে দ্রাবিড় হচ্ছে ধৈর্যশীল ব্যাটিং-এর এক অনন্য উদাহরণ। ব্যাট হাতে তিনি যেরকম ছিলেন সৌম্যের প্রতীক, একইভাবে মাঠের বাইরেও তার ব্যবহার জয় করে নেয় ক্রিকেট সংশ্লিষ্ট সকলের। যেসকল প্রতিপক্ষের বিপক্ষে খেলার মাঠে একবিন্দু পরিমাণও ছাড় দেননি, তারাও তাকে সবসময় শ্রদ্ধার চোখে দেখে এসেছে। সারাজীবন খেলেছেন শচীন, সৌরভ, শেহবাগদের সাথে। বেশিরভাগ সময়ই ঢাকা পরে গিয়েছেন তাদের ছায়ায়। কিন্তু তাই বলে নিজের দলের প্রতি তার নিবেদন একটুখানিও কমে যায়নি। আড়ালে থেকেই দলের জন্য অবদান রেখে গেছেন বছরের পর বছর। ১৯৯৬ থেকে ২০১২, প্রায় ১৬ বছর ভদ্রলোকের এই খেলায় মুগ্ধতা ছড়িয়ে গেছেন তিনি। সতীর্থ বা অগণিত ভক্তদের পাশাপাশি নিজের প্রতিপক্ষের প্রশংসা বাক্যেও হয়েছেন সিক্ত। দ্রাবিড়ের গুণ মুগ্ধ হয়ে ক্রিকেটের বিখ্যাত ব্যক্তিদের করা অসংখ্য স্তুতি বাক্য থেকে দশটি বাছাই করে আপনাদের সামনে উপস্থাপন করা হল-    

দ্রাবিড়ের অসাধারণ ক্যারিয়ার প্রমাণ করে যে ভালো মানুষেরা সবসময় সবার শেষে থাকে না।

স্টিভ ওয়াহ

সে ভারতের ব্যাটিং-এর সত্যিকারের স্তম্ভ। সে নিঃসন্দেহে এই যুগের সেরা ভারতীয় ব্যাটসম্যান।

কপিল দেব
দ্রাবিড় ও শেন ওয়াটসন

সে সম্ভবত আমার দেখা অন্যতম, না, সে আমার দেখা ক্রিকেটের সব থেকে ভালো মানুষ। সে একজন চমৎকার মানুষ।

শেন ওয়াটসন

দ্রাবিড় চাইলে আমার মত আক্রমণাত্মক ক্রিকেট খেলতে পারবে, কিন্তু আমি কখনোই তার মত খেলতে পারব না।

ক্রিস গেইল

এসব যা চলছে কোনোটাই অ্যাগ্রেশনের উদাহরণ না। ক্রিকেট মাঠে অ্যাগ্রেশন দেখতে চাইলে, [ব্যাটিং-এর সময়] রাহুল দ্রাবিড়ের চোখের দিকে তাকাও।    

ম্যাথিউ হেইডেন

দল সমস্যার মধ্যে পরেছে ? কার কাছে যাবে এখন ? রাহুল দ্রাবিড় !

ইয়ান চ্যাপেল
শচীন টেন্ডুলকার, রাহুল দ্রাবিড় ও সৌরভ গাঙ্গুলি

রাহুল সবসময়ই শচীনের ছায়ায় থেকেছে। তুমি যদি তার রেকর্ডের দিকে তাকাও, সেটা শচীনের সমকক্ষ। কিন্তু তুমি দুইজনের মধ্যে তুলনা করতে পার না, কারণ তারা দুইজন খুব ভিন্ন ধরনের খেলোয়াড়। রাহুল একজন পরিপূর্ণ ক্রিকেটার।

মুত্তিয়া মুরালিধরন

যদিও শচীন একজন মহান খেলোয়াড়, আমার কাছে সবসময় রাহুলকে বেশি সলিড আর আউট করার জন্য কঠিন বলে মনে হয়েছে। তার ডিফেন্স খুবই সলিড আর সে অন্যদের থেকে শটও কম খেলে। যখন একজন ব্যাটসম্যান শট কম খেলে তখন তাকে আউট করা কঠিন হয়ে যায় কারণ সে ভুল কম করে।

শোয়েব আখতার
দ্রাবিড় ও শেন ওয়ার্ন

রাহুল দ্রাবিড়কে ‘দ্যা ওয়াল’ বলাটা একদম সঠিক। রাহুলকে চাইলে ‘দুর্গ’ও বলা যেতে পারে। কারণ একবার দ্রাবিড় সেট হয়ে গেলে তাকে আউট করার জন্য ডজন খানেক কামানকে একসাথে চালানোর সমপর্যায়ের বোলিং করতে হত।

শেন ওয়ার্ন  

আমাকেই বলতেই হবে যে স্টাইলের ক্ষেত্রে আমার কাছে রাহুল দ্রাবিড়কেই সবথেকে স্টাইলিশ বলে মনে হয়। বক্সিং-এর ভাষায়, তার ঘুষিগুলো কারো চোখে ধরা পরে না। কিন্তু সব শেষে, তার প্রতিপক্ষ পুরোপুরি ঘায়েল হয়ে যায়।

স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডস

তথ্যসুত্রঃ

http://www.scrolldroll.com/quotes-on-rahul-dravid/

https://en.wikipedia.org/wiki/Rahul_Dravid

ফিচার ইমেজঃ

https://www.independent.co.uk/sport/cricket/writing-is-on-the-wall-as-legend-dravid-quits-7546054.html

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *